হাইমচরের আলগী উত্তরে আ.লীগের দলীয় ফরম ক্রয় করেন দপ্তর সম্পাদক মাকসুদুল আলম

হাইমচরের আলগী উত্তরে আ.লীগের দলীয় ফরম ক্রয় করেন দপ্তর সম্পাদক  মাকসুদুল আলম

হাইমচরের আলগী উত্তরে আ.লীগের দলীয় ফরম ক্রয় করেন দপ্তর সম্পাদক মাকসুদুল আলম

আসন্ন ৫ জানুয়ারী চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলাধীন ২ নং আলগী উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন ফরম ক্রয়  করেছেন হাইমচর  উপজেলা আওয়ামী লীগ দপ্তর সম্পাদক মাকসুদুল আলম খান। 

২৯ নভেম্বর সোমবার  ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ২ নং আলগী উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন ফরম ক্রয় করেছেন তিনি প্রার্থী। 


মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপির স্নেহধন্য, হাইমচর উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মাকসুদ আলম খান একজন দক্ষ সংগঠক। তিনি কর্মদীপ্ত চেতনার একজন নির্লোভ,নিরহংকার এবং উদার মনের মানুষ। 

মাকসুদুল আলম খান রাজনৈতিক বিবেচনায় প্রজ্ঞাবান, পরিশ্রমী এবং জনবান্ধব নেতা। দুঃসময়ে ছিলেন দলের অন্যতম কান্ডারী।

মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ও আওয়ামী পরিবারের সন্তান হিসেবে ছোটবেলা থেকেই মুক্তিযুদ্ধ এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বীরত্বেগাঁথা সব ইতিহাস শুনেই  শৈশব কেটেছে।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্ধুদ্ধ হয়ে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে খুব কম বয়সেই ছাত্রলীগে যোগদান করেন।বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিকশিত মাকসুদ আলম খানের রয়েছে দীর্ঘ রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক সেবাদানের ইতিহাস। 

১৯৯৬ সাল থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত শিক্ষা,শান্তি,প্রগতির মশালবাহী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু কলেজ শাখার সহ-সভাপতির দায়িত্ব সফলতার সাথে পালন করেছেন।

পরবর্তীতে, দীর্ঘদিন যুবনেতা হিসেবে যুবলীগের সক্রিয় কর্মীর দায়িত্ব পালনকালে দেশবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে রাজপথ দাবিয়ে বেড়িয়েছেন।দলের ক্রান্তিলগ্নে মাকসুদ আলম খান ক্ষমতাসীন বিএনপি জামাতজোটের নির্মম অত্যাচার নির্যাতনের স্বীকার হয়েছেন।

মাকসুদুল আলম খান ২০০৩ সাল থেকে অদ্যাবধি হাইমচর উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

পরিশ্রম,দুরদর্শিতা এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শচর্চার  মাধ্যমে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে, শিক্ষামন্ত্রী ডা দীপু মনি এমপি নির্দেশে হাইমচর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে হাইমচর উপজেলা আওয়ামী লীগকে একটি আদর্শ ও শক্তিশালী ইউনিটে পরিনত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছেন।

তিনি ২০০১ সাল থেকে নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সভাপতি এবং ২০০৮ সাল থেকে ২নং   আলগী দুর্গাপুর উত্তর ইউনিয়নের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কখনো আহবায়ক এবং কখনো সদস্য সচিব হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

মাকসুদুল আলম খানের দায়িত্বনিষ্ঠা সর্বজনস্বীকৃত এবং প্রশংসিত। তার রাজনৈতিক,সামাজিক এবং মানবিক কার্যক্রমের মাধ্যমে তৃনমুলে প্রতিনিয়ত আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

জনগণের প্রতি দায়িত্বশীলতার স্বীকৃতস্বরুপ গত ইউনিয়ন নির্বাচনে তৃনমুলের শতভাগ আস্থা ও সাধারণ মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষণা করেন।পরবর্তীতে, দলীয় সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা ও সম্মান জানিয়ে নিজের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নৌকা প্রতীকে মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে অক্লান্ত পরিশ্রম করেন।

দলের প্রতি নিবেদিত মাকসুদুল আলম খানের দক্ষতা,পরিশ্রম এবং ত্যাগের মূল্যায়ন এবারের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে হবে বলে আশাবাদী তৃনমুল আওয়ামী লীগ।

তাই আগামী ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে তৃনমুল আওয়ামী লীগের একটাই দাবি,মাকসুদ আলম খান হবেন নৌকার মাঝি।


নির্বাচন কমিশন ঘোষিত ৫ ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৫ জানুয়ারী  হাইমচর উপজেলায় আলগী উত্তর এবং নীল কমল ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। 

 এছাড়া ৪র্থ ধাপে হাইমচর উপজেলায় আলগী দক্ষিণ ও হাইমচর ইউনিয়ন নির্বাচনে ৫ জানুয়ারী ২০২২ ভোট গ্রহনের তারিখ নির্ধারন করে গন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মোঃ শাহজাহান মামুন।

চাঁদপুর টুডে/মোশারফ হোসেন নয়ন/এফএম

পাঠকের মন্তব্য