'চাঁদপুর কে স্বপ্নের বাণিজ্যিক নগরে পরিনত করব,

'চাঁদপুর কে স্বপ্নের বাণিজ্যিক নগরে পরিনত করব,

'চাঁদপুর কে স্বপ্নের বাণিজ্যিক নগরে পরিনত করব,

 গত ১০  অক্টোবর শনিবার চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।  বিপুল ভোটের ব্যবধানে চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন এডভোকেট মোঃ জিল্লুর রহমান জুয়েল।  তিনি নৌকা প্রতীক নিয়ে ৩৪ হাজার ৮শ ২৫ ভোট পেয়েছেন।  আর ধানের শীষ প্রতীকে মোঃ আক্তার হোসেন  মাঝি  পেয়েছেন  ৩ হাজার ৬শ ১৩ ভোট। জিল্লুর রহমান জুয়েল আক্তার মাঝে থেকে ৩১ হাজার ২শ ১২  ভোট বেশি পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় নবনির্বাচিত পৌর মেয়র এডভোকেট মোঃ জিল্লুর রহমান বলেন, চাঁদপুর পৌরবাসী তাদের মূল্যবান ভোট দিয়ে নৌকা প্রতীকে আমাকে  জয়যুক্ত  করায় আল্লাহ রাব্বুল  আলামিনের প্রতি আমি শুকরিয়া আদায় করি। সম্মানিত ভোটারদের আমি প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা ও  ধন্যবাদ জানাই। আপনারা আমার উপর যে আস্থা ও বিশ্বাস স্থাপন করেছেন আমি আমার সততা, আন্তরিকতা, নিষ্ঠা, মেধা, দক্ষতা ও আমার নিরলস পরিশ্রম দিয়ে  আপনাদের সে আস্থা অবিশ্বাসের পূর্ণ মর্যাদা রক্ষা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।


আপনাদের নির্বাচিত পৌর মেয়র হিসেবে আমাকে আপনাদের সেবা করার সুযোগ দিয়েছেন, আমাকে সম্মানিত করেছেন, আপনাদের  দেয়া এ দায়িত্ব আমি যথাযথভাবে  পালনে আমার অঙ্গীকার   পুনর্ব্যক্ত করছি।
আমি আপনাদের দোয়া, শুভকামনা ও সহযোগিতা প্রত্যাশা করি। ইনশাআল্লাহ,  পৌরবাসী হিসেবে আপনাদের সকল সেবা প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে আমি আপনাদের সাথে কাজ  করব। এ শহরকে আমি আমাদের স্বপ্নের ঐতিহ্য, বাণিজ্য পর্যটন নির্ভর নান্দনিক চাঁদপুরে পরিণত  করব ইনশাআল্লাহ।
আমি আমার দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ড এবং সর্বোপরি আমাদের প্রাণপ্রিয় নেত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা, দেশরত্ন, জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জানাই আমাকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দিয়ে চাঁদপুর পৌরবাসীকে সেবা করার সুযোগ প্রদানের জন্য। আমাদের চাঁদপুর হাইমচরের উন্নয়নের রূপকার, মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী ডা: দীপু মনি আপার প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা জানাই। আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্বে তার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণের নিজেকে নিয়োজিত করতে পেরে গর্বিত।
এ  নির্বাচনের জন্য আমাদের দীর্ঘদিন কাজ করতে হয়েছে। আপনারা জানেন যে বিএনপির প্রার্থীর মৃত্যুতে নির্বাচনটি স্থগিত হয়ে যায় এবং পরে  করোনা মহামারীর কারণে আর বিলম্ব ঘটে। চাঁদপুর জেলা, সদর উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, মহিলা লীগ, যুব মহিলা লীগ স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগ  ও  কৃষক লীগ সহ আমাদের সকল সংগঠনের নেতাকর্মীরা এই দীর্ঘ দিনএই নির্বাচনের জন্য নিরলস পরিশ্রম করেছেন। তাদের সকলের প্রতি আমি আমার শ্রদ্ধা, ভালোবাসা, কৃতজ্ঞতা জানাই। আজকের এই বিজয় আপনাদের নিরলস পরিশ্রমের ফসল। আমি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জানাই চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মানিত সহ-সভাপতি ডা: জাওয়াদুর রহিম ওয়াদুদের নেতৃত্বাধীন আমাদের নির্বাচন পরিচালনা কমিটিকে তাদের দূরদৃষ্টি, প্রজ্ঞা, কঠিন শ্রম এবং বলিষ্ঠ নেতৃত্বের জন্য। আমাদের এই নির্বাচনে বরাবরের মতই চাঁদপুরের সাংবাদিক,  সাংস্কৃতিক কর্মী, ব্যবসায়ী ও পেশাজীবী সহ বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ তাদের গুরুত্বপূর্ণ সমর্থন ও সহায়তা প্রদান করেছেন। আমি তাদের সবার কাছে কৃতজ্ঞ। আমার পরিবারের প্রতিটি প্রিয়জনের কাছে আমি তাদের ধৈর্য, দোয়া, ভালোবাসা ও সহযোগিতার জন্য ঋণী। নির্বাচন পরিচালনায় দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাচন কমিশন, জেলা, উপজেলা প্রশাসন, প্রিজাইডিং, সহকারি প্রিজাইডিং ও পোলিং কর্মকর্তাবৃন্দ, পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব, আনসারসহ সকল আইনশৃঙ্খলার দায়িত্বে নিয়োজিত ব্যক্তিবর্গ এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। আমি  নির্বাচনে যারা জয়যুক্ত হয়েছেন এবং যারা অংশ নিয়েছেন সবাইকে সঙ্গে নিয়ে চাঁদপুরের পৌরবাসীর সেবায় কাজ করবো ইনশাআল্লাহ।


জয় বাংলা। জয় বঙ্গবন্ধু।

বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।

পাঠকের মন্তব্য